বাংলাদেশে কার্ডফোন (পে-ফোন) সেবার ইতিহাস

পূর্বে দেশে কয়েনবক্স পেফোন সেবা চালু ছিল, যা একসময় নানা কারণে ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়ে। ১৯৯২ সালে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় (MoPT), বাংলাদেশ তার ও টেলিফোন বোর্ড (BTTB) এবং টেলিফোন শিল্প সংস্থা লিমিটেড (TSS) এর মধ্যে অনুষ্ঠিত এক ত্রিপক্ষীয় সভায় টেলিযোগাযোগ সুবিধা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছানোর উদ্দেশ্যে কার্ডফোন সেবা চালুর সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এ লক্ষ্যে ১৬/০৮/১৯৯২ তারিখে কার্ডফোন ক্রয় চুক্তি সম্পাদিত হয়। ২৬/০৭/১৯৯৩ তারিখে টেশিস ও বিটিটিবি’র মধ্যে কার্ডফোন রক্ষণাবেক্ষণ ও পরিচালনা চুক্তি সম্পাদিত হয়। কার্ডফোন সেবা থেকে প্রাপ্ত রাজস্ব থেকে ভ্যাট, ট্যাক্স ও কমিশন বাদ দেয়ার পর বিটিটিবি ও টেশিসের মধ্যে ৬০:৪০ অনুপাতে বন্টন হয়। টেশিসের আয় নিজস্ব প্রয়োজনে ব্যয়িত হয় এবং বিটিটিবি’র আয় সরকারী খাতে জমা হয়

 ৫০, ১০০ ও ২০০ ইউনিটের কার্ড এর মূল্য যথাক্রমে ১২০, ২১০ ও ৪০০ টাকা ধার্য করা হয়। সিডিউল ব্যাংক, ডাকঘর, ও টেশিসের বিক্রয়কেন্দ্রগুলো থেকে ২% কমিশনে বিক্রির ব্যবস্থা করা হয়। পরবর্তীতে যত্রতত্র বেসরকারী ফোন-ফ্যাক্সের দোকান চালু হওয়ায় এবং সেলুলার টেলিফোনের বহুল প্রচলনের ফলে কার্ডফোনের ব্যবহার ব্যাপকভাবে হ্রাস পায়। প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার জন্য ০১/০১/২০০৭ থেকে ৫০, ১০০ ও ২০০ ইউনিটের কার্ডের দাম কমিয়ে যথাক্রমে ১০০, ১৪০ ও ২৪০ টাকা করা হয় এবং কার্ড বিক্রেতাদের কমিশনের হার বাড়িয়ে ৫%-১০% করা হয়।

 ম্যাগনেটিক ও চীপটাইপ কার্ডফোনে ব্যবহৃত ফোনকার্ডের উৎপাদন ব্যয় প্রতি কার্ডে যথাক্রমে ১৮টাকা ও ৩৩টাকা ছিল। এই ব্যয় এবং কার্ডফোনের যন্ত্রাংশ ক্রয়বাবদ ব্যয় বার্ষিক রক্ষণাবেক্ষণ খাত থেকে মেটানো হয়েছে। কার্ডফোন সার্ভিসের জন্য বিটিটিবির নেটওয়ার্ক, লিংকসমূহ ও নাম্বার ব্যবহার করা হয়েছে।

 স্থানীয় কলের ক্ষেত্রে ৩ মিনিটে ১ ইউনিট ধরা হতো।এনডব্লুডি ও আইএসডি কলের ক্ষেত্রে বিটিটিবি’র নির্ধারিত হারে বিল করা হয়েছে। ৩১/১২/২০০৬ পর্যন্ত কার্ডফোন কলে প্রতি ইউনিটের মূল্য ছিল ২ টাকা। ০১/০১/২০০৭ থেকে তা কমিয়ে ১.২০ টাকা করা হয়।

 স্থানীয় জনসাধারণ বা কোন প্রতিষ্ঠানের অনুরোধের প্রেক্ষিতে বিটিটিবি’র কারিগরী ও টেসিসের আর্থিক সম্ভাব্যতা প্রতিবেদন (ফিজিবিলিটি রিপোর্ট) অনুকূলে হলে কার্ডফোন স্থাপন করা হত। এছাড়া জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে ও রাজনৈতিক নেতাদের নির্দেশেও কার্ডফোন বুথ বসানো হয়েছিল।

 প্রথম পর্যায়ে ১৪০০টি ম্যাগনেটিক কার্ডফোন উর্মেট স্পা, ইটালী থেকে কেনা হয়েছিল। ৩০/০৯/১৯৯২ তারিখে ঢাকায় কমলাপুর রেলষ্টেশনে প্রথম কার্ডফোনটি বসানো হয়। কার্ডফোনের আয়ুষ্কাল ছিল ৫ বছর। কতিপয় অসৎ ব্যক্তি কার্ডের পরিবর্তে সেলুলয়েড ফিল্ম স্ট্রিপ, ধাতব পদার্থ ইত্যাদি কার্ডফোনে ঢুকিয়ে বেশ কিছু ফোনসেট নষ্ট করে ফেলে। এমনকি কিছু বুথে স্টিলের কর্ড যুক্ত হ্যান্ডসেট ছিড়ে নিয়ে যায়। এছাড়া কার্ডফোনের আইএসডি সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে ফোন-ফ্যাক্সের দোকানে লাগিয়ে রাজস্ব চুরির কিছু ঘটনাও ধরা পড়ে। এসব অভিজ্ঞতার আলোকে ১২/০৬/১৯৯ তারিখ থেকে নষ্ট ও মেরামত অযোগ্য ম্যাগনেটিক কার্ডফোনের পরিবর্তে চীপ-টাইপ কার্ডফোন বসানো শুরু হয়। সিমেন্স এলাসা, স্পেন থেকে টিএমআই মডেলের ১০০০টি আউটডোর টাইপ ও ইন্টারসেট মডেলের ১৩০টি ইনডোর টাইপ কার্ডফোন সংগ্রহ করা হয়। এই কার্ডফোনগুলো কম্পিউটারাইজড ছিল এবং চুরি রোধের জন্য সুইচরুমে এন্টিফ্রড ডিভাইস যুক্ত ছিল। শেরেবাংলা নগর টেলিফোন ভবনে ২ টি নেটওয়ার্ক ম্যানেজমেন্ট সেন্টারে (এনএমসি) সারাদেশের কার্ডফোনগুলো প্রতিদিন মনিটর করা হতো।

মার্চ ২০০৮ এ ৯৫০টি কার্ডফোনের মধ্যে ভাল ছিল মাত্র ৪০০টি। কার্ডফোন ম্যানেজমেন্ট সেন্টার অচল হয়ে পড়ে এবং সিমেন্স কোম্পানী এটি মেরামতে অপারগতা জানায়। সিমেন্সের সাথে চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়াতে পরিবর্তিত কলরেট অনুযায়ী ফোনসেটগুলো প্রোগ্রামিং করা সম্ভব হচ্ছিল না। ব্যাংক ও ডাকঘরগুলো ফোনকার্ড বিক্রিতে আর আগ্রহী ছিল না। সর্বোপরি সেলুলার ফোন দেশব্যাপী সহজলভ্য হওয়ায় কার্ডফোনের ব্যবহার একেবারেই কমে যায়। বাংলাদেশে আগত পর্যটকের সংখ্যা খুবই কম, ফলে কার্ডফোন/পেফোনের ব্যবহারকারী হিসেবে বিদেশী পর্যটকদের চাহিদাও তেমন নেই। সার্বিক অবস্থার প্রেক্ষিতে ১৯৯২ থেকে ১৭ বছর চলার পর ০১/০৭/২০০৯এ বিটিসিএল ও টেশিসের যৌথ উদ্যোগে পরিচালিত কার্ডফোন সেবা বন্ধ করে দেয়া হয়। এই পর্যায়ে বেসরকারী উদ্যোগে কার্ডফোন/পেফোন সেবা দিতে আগ্রহী প্রতিষ্ঠানের জন্য বিজ্ঞাপন দিয়েও কোন সাড়া পাওয়া যায়নি।

কার্ডফোন ক্রয় বাবদ ব্যয় হয় ৩৬.৬ কোটি টাকা।

Investment in Cardphone Service

Item

Rate

Unit Price

Price

Year

Comment

 

 

(Taka)

(Taka)

 

 

Magnetic

1400

145000

203000000

1992

Foreign Currency

Chip-Outdoor

1000

130000

130000000

1999

Foreign Currency

Chip-Indoor

130

69000

8970000

1999

Foreign Currency

Booth

2400

10000

24000000

1992-2006

Built by TSS

Total

 

 

365970000

 

 

১৯৯২ এ কার্ডফোন সার্ভিস চালুর পর থেকে ৩০/০৬/২০০৯ পর্যন্ত ১৭ বছরে কার্ডফোন খাতে মোট আয় হয়েছে ১৭২ কোটি টাকা।

#

 

Financial Year

Number of Card-phones

Call Units (1 unit=3 minutes for local call, 1 unit=few seconds for International call)

Revenue in Taka (charge was Tk 2/unit till end of 2006. After that, charge was Tk 1.20/unit)

Average Revenue in Taka/ Phone/month (assuming 30% phone out of order)

 

 

Magnetic

Chip

Total

Magnetic

Chip

Total

 

 

 

 

a

B

c=a+b

d

e

f=d+e

g=f*2 (till 31/12/2006), g=f*1.2 (from 01/01/2007)

h=(g/c)/12

1

1992-93

146

0

146

10992311

0

10992311

21984622

17926

2

1993-94

585

0

585

46578893

0

46578893

93157786

18958

3

1994-95

887

0

887

96776236

0

96776236

193552472

25977

4

1995-96

1124

0

1124

127661559

0

127661559

255323118

27042

5

1996-97

1287

0

1287

141801780

0

141801780

283603560

26233

6

1997-98

1334

0

1334

131536707

0

131536707

263073414

23477

7

1998-99

1376

0

1376

108921244

0

108921244

217842488

18847

8

1999-00

1288

93

1381

69192872

296410

69489282

138978564

11980

9

2000-01

1095

232

1327

39172708

7557514

46730222

93460444

8385

10

2001-02

822

437

1259

14731919

13067243

27799162

55598324

5257

11

2002-03

720

472

1192

6011989

17709526

23721515

47443030

4738

12

2003-04

447

688

1135

2417769

12916380

15334149

30668298

3217

13

2004-05

124

961

1085

467432

8057279

8524711

17049422

1871

14

2005-06

71

985

1056

163751

3194711

3358462

6716924

757

15

2006-07

34

971

1005

15288

1337197

1352485

2114769

251

16

2007-08

0

950

950

0

1870378

1870378

2244454

281

17

2008-09

0

400

400

0

591017

591017

709220

211

18

2009-10

0

0

0

0

0

0

0

 

 

Total

 

 

 

796442458

66597655

863040113

1723520909

 

উল্লেখ্য যে যখন সেলুলার ফোন ও ইন্টারনেট সুবিধে ছিল না, ল্যান্ডফোন ছিল সীমিত সংখ্যক অফিসে বা বাসায়, তখন বাংলাদেশের প্রায় সব উল্লেখযোগ্য স্থানে জনগণের সহজ ব্যবহারের লক্ষ্যে কার্ডফোন বুথগুলো বসানো হয়, যা টেলি এক্সেস কে বহুগুণে বৃদ্ধি করেছিল।